ই-পেপার | রবিবার , ১৪ জুলাই, ২০২৪

মেয়র রেজাউলের দ্বিতীয় বাজেট ২১৬১ কোটি টাকার

২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ২ হাজার ১৬১ কোটি ২৭ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক), যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ৩০২ কোটি ৬৯ লাখ টাকা কম। গতকাল রোববার বেলা ১১টায় নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউটে এ বাজেট ঘোষণা করেন সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী। একই সাথে বিদায়ী অর্থবছরের (২০২১-২২) সংশোধিত বাজেটও উপস্থাপন করেন।

গত অর্থ বছরে ২৪৬৩ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হলেও অর্থবছর শেষে সংশোধনে তা কমে ১২০২ কোটি ৫৭ লাখ টাকায় দাঁড়ায়। অর্থাৎ বাজেট বাস্তবায়নের হার অর্ধেকের কম ৪৮ দশমিক ৮০ শতাংশ। এ সময় সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এবারের প্রস্তাবিত বাজেটের সিংহভাগ আয় দেখানো হয়েছে সরকার ও দাতা সংস্থার উন্নয়ন অনুদান থেকে ১ হাজার ২৫৬ কোটি টাকা পাওয়ার প্রত্যাশা করছে করপোরেশন, যা মূল বাজেটের প্রায় ৫৯ শতাংশ। আগের অর্থবছরে ১ হাজার ৬১১ কোটি টাকার বিপরীতে পেয়েছিল ৭২৪ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

এ ছাড়া নিজস্ব উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯০৪ কোটি ৫৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা, যা প্রস্তাবিত বাজেটের অর্ধেকের কম ৪১ শতাংশ। যদিও শেষ হতে যাওয়া অর্থবছরে ৮৫২ কোটি ১ লাখ টাকার মধ্যে শেষ পর্যন্ত আয় করে ৪২৭ কোটি ৯০ লাখ টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ৩৯ শতাংশ।

নিজস্ব উৎসের মধ্যে গৃহকর খাতে আয়ের প্রত্যাশা ধরা হয়েছে ৪২৭ কোটি টাকা। অন্যান্য কর ও ফি খাতে আদায় করবে ২৮২ কোটি টাকা। বিভিন্ন ভবন, হাটবাজার, বিপণিবিতান থেকে ভাড়া আদায় হবে ১১১ কোটি টাকা।

এ দিকে ব্যয় খাতের মধ্যে বেতনভাতা, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণে খরচ হবে ৫৬৫ কোটি টাকা। উন্নয়ন খাতে ব্যয় হবে ১ হাজার ২৫৯ কোটি টাকা। আগের বকেয়া পরিশোধের জন্য রাখা হয়েছে ১৭৬ কোটি টাকা। মেয়রের বাজেট উপস্থাপন শেষে খাতওয়ারি বিবরণী উপস্থাপন করেন চসিকের অর্থ ও সংস্থাপন স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইসমাইল।